প্রকল্প বাস্তবায়ন হলেই ঘরে বসে আয় হবে ডলার-পাউন্ড

ঘরে বসে আয়লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে দেশের মাটিতে ও ঘরে বসে আয় করা যাবে ডলার, ইউরো। জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক।

বুধবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বিসিসি ভবনে ‘লার্নিং অ্যান্ড আর্নিং: আত্মনির্ভনশীলতায় নতুন সম্ভাবনা’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

পলক বলেন, ‘এই প্রকল্পটি প্রধানমন্ত্রীর একটি স্বপ্নের প্রকল্প। এটি বাস্তবায়ন হলে কাউকে আর বিদেশ যাওয়ার জন্য ঘুরতে হবে না। দেশের মাটিতে ও ঘরে বসে আয় করতে পারবে ডলার, ইউরো ও পাউন্ড। এ ফলে বিশ্বের দরবারে বাংলাদেশের মর্যাদা যেমন বৃদ্ধি পাবে, একইসঙ্গে অর্থনীতিও হবে শক্তিশালী।’

তিনি বলেন, ‘দক্ষতা ও স্বচ্ছতার মাধ্যমে আমরা এই প্রকল্পের টাকা ব্যয় করতে চাই।’

তিনি আরো বলেন, ‘দেশে ইতিমধ্যে প্রায় ৭ লাখ জনশক্তি ইন্টারনেট ভিত্তিক পেশাজীবীতে পরিণত হয়েছে।’ এই প্রকল্পের মাধ্যম্যে আগামী ২০১৬ সাল নাগাদ ৫৫ হাজার ফ্রিল্যান্সার গড়ে তোলা হবে বলে তিনি জানান।

এ সেমিনারে প্রায় ৩০০ আইটি এক্সপার্ট, সরকারি কর্মকর্তা, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ফ্রিল্যান্সার অংশগ্রহণ করেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ইমরান সিকদার, প্রকল্পের কমিউনিকেশন কনসালটেন্ট অজিৎ কুমার সরকার, ওডেক্স ও ইল্যান্সের কান্ট্রি ম্যানেজার সাইদুর রহমান খান।

ফেসবুক আইডি থেকে মন্তব্য করতে পারেন

টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।